আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

যুক্তরাজ্য, ইতালি, কানাডা, সিংগাপুরসহ বেশ কয়েকটি দেশে ইতোমধ্যে নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। তবে এবার পাওয়া গেলো আগে থেকেই করোনায় বিপর্যস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও। যুক্তরাষ্ট্রে ২০ বছর বয়সী এক তরুণের শরীরে নতুন ধরণের ভাইরাসটি সনাক্ত করা হয়েছে। খবর বিবিসি

বর্তমানে ওই তরুনোকে আইসোলেশনে নিয়েছে রাজ্যটির স্বাস্থ্য বিভাগ। নতুন প্রজাতির এ ভাইরাসটি অন্যগুলোর তুলনায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে।

স্থানীয় সময় বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে কলোরাডোর গভর্নর জারেড পলিস বলেন, ‘করোনার নতুন ধরনে আক্রান্ত ব্যক্তিকে এলবার্ট হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে। উৎপত্তি নিয়ে তদন্ত চলছে। এখন পর্যন্ত ওই ব্যক্তি সংস্পর্শে আসা কারো শরীরে ভাইরাসটির নতুন রূপের উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়নি।’

এদিকে, বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক ছড়িয়ে চলছে করোনার নতুন ধরনের এই প্রজাতি। এখন পর্যন্ত তিনটি নতুন রূপ শনাক্ত হয়েছে। এই রূপগুলো ইতোমধ্যে বিশ্বের ১৫টি দেশে ছড়িয়েছে। যা খুবই মারাত্মকজনক সংক্রমক, এটি ৭০ শতাংশ পর্যন্ত বেশি ছড়ায়।

করোনার নতুন ধরনের (স্ট্রেইন) সংক্রমণ প্রথম শনাক্ত হয় যুক্তরাজ্যে। এরপর বিভিন্ন দেশে এই ভাইরাসের অস্তিত্ব টের পাওয়া যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের আগে সবশেষ পাওয়া যায় দক্ষিণ এশিয়ার ভারতে।

এর আগে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ১৪ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হয় করোনাভাইরাসের নতুন রূপ। এ পর্যন্ত দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডের শতাধিক জায়গায় শনাক্ত হয়েছে এই ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছে সহস্রাধিক মানুষ।

এছাড়া অস্ট্রেলিয়া, নেদারল্যান্ডস, ইতালি, নাইজেরিয়া, সিঙ্গাপুর, ফ্রান্স, জাপান, লেবানন, কানাডা, সুইডেন, ডেনমার্ক, স্পেন ও দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হয়েছে ভাইরাসটির নতুন স্ট্রেন।

তবে, করোনাভাইরাসের এই নতুন রূপটি খুবই সংক্রামক হলেও এতে মৃত্যুহার বেশি কিনা সেটা এখন পর্যন্ত প্রমাণিত হয়নি।