মোহাম্মাদ আলীঃ
আমারা প্রতিটি মূহূর্তে মস্তিষ্কের উপর নানা রকম চাপ প্রয়োগ কোরে থাকি। মস্তিষ্কে অধিক চাপ প্রয়োগ করা ঠিক না। কিন্তু আমাদের মনের অজান্তেই এটা হয়ে যায়। দীর্ঘ দিনের হতাশা অথবা অধিক মানসিক চাপ মানুষের মস্তিষ্কের জন্য ক্ষতিকর।

এই চাপ দূর করার জন্য সর্বদা হাসি খুশি থাকার চেষ্ঠা করা,গানশোনা,পছন্দের বই পড়া,বন্ধুদের সাথে আড্ডা,যোগব্যায়াম করা ইত্যাদির মাধ্যমে মানসিক চাপ কমিয়ে নেয়া যেতে পারে। দুপুরের ঘুম পরিহার করুন। রাতে পরিপূর্ণ ঘুমানোর চেষ্ঠা করুন। যদি রাতে পরিপূর্ণ ঘুম না হয় তবে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরমর্শ নিন। তবে যারা চোখের পরিশ্রম করেন তারা দুপুরে বিশ্রাম নিন। মস্তিষ্কের যত্নে প্রতিনিয়ত যথেষ্ট পরিমান পানি পান করুন।

এতে করে মস্তিষ্কের কোষে তত পরিমান রক্তপ্রবাহ হবে। ফলে স্মায়ুগুলো সজাগ হবে বেশি। হতাশা দুশ্চিন্তার কারনে মানুষের মস্তিষ্ক স্মায়ুগুলো দুর্বল হয়ে যায়। তাই সব অঙ্গে ক্ষতিকর প্রভাব পরে। মানুষ দ্রুত সব কিছু ভূলে যায়। তাই সব সময় হাসিখুশি থাকুন। মস্তিষ্ককে আরাম দিতে শুনতে পারেন আপনার পছন্দের কোনো গান।

এতে করে আপনার স্মৃতিশক্তি ও কল্পনার ক্ষমতা বাড়ায়। পরিমিত মাত্রায় বুদ্ধিবৃত্তিক খেলাও মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়াতে তেলে ভাজা জাতিয় খাবাব, মাংসজাত চর্বি, মাখন গ্রহন থেকে বিরত থাকুন। ফল ও সবজি বেশি করে খেতে পারেন। মাংস বাদ দিয়ে অধিক পরিমান মাছ খেতে পারেন।
তথ্যসূত্র: ওয়েবএমডি