বরিশালে রেইন্ট্রি গাছ থেকে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

ARIFkhan 0

বরিশাল প্রতিনিধি :
বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের কাজিরহাটে এক যুবককে তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষরা হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় ভাষাণচর ইউনিয়নের নয়াভাঙ্গুলি গ্রামের একটি রেইন্ট্রি গাছ থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ জাফর খান (২৫) নামের ওই যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। পুলিশ সুরতাহালে যুবকের শরীরের একাধিক স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়ায় এই প্রাণবিয়োগের ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড হিসেবে অনুমান করছে।

নিহতের পরিবারের দাবি, পেশায় ড্রেজার শ্রমিক জাফরকে প্রতিপক্ষ মাইদুল ও কামরুলের নেতৃত্বে বাসা থেকে তুলে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পরে মরদেহটি গাছের সাথে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।
জাফরের মা পিনজিরা বেগমের অভিযোগ, জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে বুধবার রাতে মাইদুল ও কামরুল তার বাসায় সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে প্রবেশ করে এবং জাফরকে তুলে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পরে তাকে না পেয়ে গভীর রাতে থানা পুলিশকে ফোন দেওয়া হলে সেখান থেকে অপেক্ষা করতে বলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্বপুরুষদের ওয়ারিশসূত্রে প্রাপ্ত জমি নিয়ে ইউনুস খানের ছেলে জাফরের পরিবারের সাথে চাচতো ভাইদের বিরোধ চলছিল। সাম্প্রতিকালে সেই বিরোধ জটিল আকার ধারণ করলে জাফর থানা পুলিশের কাছে প্রতিকার চেয়ে ব্যর্থ হয়ে আদালতের দ্বারস্ত হন। আদালতে ওই জমি নিয়ে মামলা চললেও কয়েকদিন আগে মাইদুল ও কামরুল দলবল নিয়ে দখলে নেওয়ার চেষ্টা করলে জাফর তাদের বাঁধা দেন।
স্থানীয় ওই সূত্রটি আরো জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির অদূরে নয়াভাঙ্গুলি গ্রামের খালপাড়ের একটি রেইন্ট্রি গাছের ডালের সাথে জাফরের মরদেহ ঝুলতে দেখে তার স্বজনদের খবর দেওয়া হয়। সেই সাথে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কাজিরহাট থানা পুলিশকেও অবহিত করা হলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনিসুল ইসলাম নিজে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মরদেহটি নামিয়ে আনেন।
থানা পুলিশ জানায়, মরদেহটি নামিয়ে সুরতাহল রিপোর্ট সংগ্রহ করা হয়েছে। এতে শরীরের একাধিক স্থান অর্থাৎ হাত-পা ও পিঠে আঘাতের চিহ্ন লক্ষ্য করা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, যুবককে হত্যার পরে মরদেহটি গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।
লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, ‘এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা গ্রহণ প্রস্তুতি চলছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Tags:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *