পিরোজপুর প্রতিনিধি :


পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় কোষ্ট গার্ডের সাথে জেলেদের মধ্যে সংঘর্ষে ২৩ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়েছে ।
এসময় তিন জেলে গুলিবিদ্ধ ও সাত জেল আহত হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ভান্ডারিয়ার উপজেলার কচাঁ ও বলেশ্বর
নদীর হরিনপালা-তুষখালি মোহনা সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধরা হলো মোঃ মোতালেব (৫৫)
হাজেরা বেগম (৬০) ও শাহিন (২৫) নামের তিন জেলে আহত হয়। এসময় লাঠির আঘাতে জসিম (২৪),
সাদ্দাম (২৫) , তহমিনা (৪৫), শাহনাজ (২০), সেলিম (২২), হেলাল (১৮) হেলাল (৩৫) আহত হয়। আহদের মধ্যে
হাজেরা বেগমকে বরিশাল শেবাচিম হাসাপালে, মোতালেব ও শাহিনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে
পাঠানো হয়েছে। পিরোজপুর জেলার মৎস্য কর্মকর্তা মো. আব্দুল বারি এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন ।
স্থানীয়রা জানায় , সকাল সাড়ে ১১টার দিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ খাইরুল ইসলাম
চৌধুরকে সাথে নিয়ে জাটকা ও ছোট পোনা মাছ নিধন বিরোধী অভিযানে বের জেলা টাষ্কফোর্স।
এ সময় জাটকা ও ছোট মাছ ধরার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের জাল আটক করা হয়। জাল আটক করে ফেরার
সময় ভান্ডারিয়ার হরিনপালা ও তুষখালী খালের মোহনায় জেলেরা জাল লুকানোর সময় কোস্টগার্ড তাদের
আটকের চেষ্টা করে। এসময় উপজেলার হরিনপালা এলাকায় ওই সব জেলেরা রামদা, শুরকি বল্লম নিয়ে তাদের
উপর হামলা চালাতে এগিয়ে আসলে কোস্টগার্ড জেলেদের উপর ৭ রাউন্ড ফাঁকাগুলি সহ মোট ২৩ রাউন্ড
গুলি করে । প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ টাকার কারেন্ট জাল, বাধা জাল, বেরা জাল আটক করে কোষ্টগার্ড এসময়
। পরে ওই সব উদ্ধারকৃত জাল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলে টাষ্কফোর্স ।
এ সময় কোষ্ট গার্ডের গুলিতে ৭/৮ জেলে আহত হলেও তারা কোন প্রকার মামলা বা গ্রেফতার
এড়াতে চিকিৎসা না করিয়ে আত্মগোপন করেন। তবে দুপুরে মঠবাড়িয়ায় তুষখালী বাজারের
এক পল্লী চিকিৎসকের মাধ্যমে ৩ জন জেলে গোপনে চিকিৎসা করান।
ভান্ডারিয়া থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মো. মাসুদুজ্জামান জানান, অভিযানে অংশ
নেয়াদের উপর হামলা চালালে কোষ্টগার্ড হামলা কারীদের ছত্র ভঙ্গ করতে ফাঁকা গুলি চালায়। তবে এতে
কেহ নিহত হওয়ার কোন খবর আমাদের কাছে নেই। তবে দু একজন আহত হয়েছে শুনেছি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *