1. contact@daynikdesherkotha.com : ARIFkhan :
  2. MDALAMINJKT@GMAIL.COM : desherkotha :
রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১২:২৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আসুন বিড়াল সম্পর্কে কিছু জানি স্বদেশ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এর বেনাপোল শাখা উদ্বোধন ঝিকরগাছা কুুুমরী বেতনা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন বানারীপাড়ায় অবৈধ ট্রলিগাড়ি কেড়ে নিলোএকই পরিবারের ২জনের প্রাণ-গুরতর আহত-২ সাইকেল চালিয়ে রাজার কাছে নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগপত্র জমা তানোরে আদিবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময় দিনাজপুরে ৩টি পৌরসভায় ভোট গ্রহন শেষ, গণনা চলছে……….. রাজাপুরে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির পরিচিতি সভা বানারীপাড়া পৌর নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সহিদুল ইসলামের মনোনয়ন পত্র দাখিল
শিরোনাম
আসুন বিড়াল সম্পর্কে কিছু জানি স্বদেশ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এর বেনাপোল শাখা উদ্বোধন ঝিকরগাছা কুুুমরী বেতনা নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন বানারীপাড়ায় অবৈধ ট্রলিগাড়ি কেড়ে নিলোএকই পরিবারের ২জনের প্রাণ-গুরতর আহত-২ সাইকেল চালিয়ে রাজার কাছে নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগপত্র জমা তানোরে আদিবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময় দিনাজপুরে ৩টি পৌরসভায় ভোট গ্রহন শেষ, গণনা চলছে……….. রাজাপুরে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির পরিচিতি সভা বানারীপাড়া পৌর নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সহিদুল ইসলামের মনোনয়ন পত্র দাখিল

পশ্চিম ঝালকাঠি ও কেফাইতনগর এলাকার মানবেতর জীবনযাপন অতুলমাঝি খেয়া ঘাটের ওপারের দিনমজুরদের.

  • Update Time : বুধবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৫ Total View

মোঃ রাজু খান, ঝালকাঠিঃ
ঝালকাঠি পৌরসভার বুক চিরে উত্তর-দক্ষিণে বয়ে গেছে বাসন্ডা নদী। যে নদীর কারণে ঝালকাঠি শহরটি দ্বিনখন্ডিত। নদীর পশ্চিম পাড়ের মানুষের বেশিভাগই শ্রমজীবী ও দিনমজুর। নদীতে যুগ যুগ খেয়া পারাপার করেই মূল শহরে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম। করোনা ইস্যুতে গত ২৫ মার্চ থেকে অঘোষিত লকডাউনের ফলে খেয়া পারের ব্যবস্থাটি বন্ধ হয়ে যায়। অপরদিকে পশ্চিম পাড়ের মানুষের নিত্যপণ্য ক্রয় করতে মূল শহরে যাতায়াতের বিকল্প নেই। তা ছাড়াও উপার্জনের পথ ময়দার মিল, লবণ মিল ও মাছ বাজার। খেয়া পারাপার বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েন পশ্চিম পাড়ের মানুষ শ্রমজীবী ও দিনমজুরেরা।
পশ্চিম পাড়ের সাধারন মানুষের সাথে কথা বলে জানাগেছে, বাসন্ডা নদীর পশ্চিম পাড়ে পশ্চিম ঝালকাঠি, কেফাইতনগর, পার কিফাইতনগর এবং ওমেশগঞ্জ এলাকার শতকরা ৭০ ভাগ মানুষই দিনমজুর। এদের প্রতিদিনই অতুল মাঝির খেয়া পার হয়ে লবণের মিল, ময়দার মিল, মাছ বাজারের মাছ বেচাকেনা ইত্যাদি কাজ করতে ঝালকাঠির মূল শহরে যেতে হয়। গত ২৫ মার্চ থেকে অতুল মাঝির খেয়া পাড়াপাড় বন্ধ। মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র, চিকৎসাসহ সকল কিছু মূল শহরের উপর নির্ভরশীল। খেয়ায় ২টাকা খরচ করে শহরে গিয়ে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ ও নিত্যপণ্য সামগ্রী ক্রয়-বিক্রয় করে। খেয়া পারাপারের বিকল্প শহরে যাওয়ার আর কোন গতি নাই। অন্যদিকে বাসন্ডা ব্রিজ হয়ে যাতায়াত স্বাভাবিক থাকলেও ২৫ মার্চ থেকে অঘোষিত লকডাউনের ফলে কোন যানবাহনও চলাচল করছে না। যেখানে খেয়া পার হয়ে অল্প সময় পায়ে হাটলেই গন্তব্যে  পৌছানো সম্ভব, সেখানে খেয়া বন্ধ থাকায় বিকল্প পথে শহরে প্রবেশ করতে দেড় ঘন্টা সময় বেশী লাগছে। আবার কিছু শ্রমিক প্রতিদিন সকালে ক্ষুধার তাড়নায়, স্ত্রী-সন্তানদের মুখে দু’বেলা খাবার দিতে নদীতে সাতার কেটে কাজে যোগদেন।
প্রতিবেদকের কাছে পশ্চিম পাড়ের মানুষের প্রশ্ন এভাবে নৌকা বন্ধ থাকলে এরা কিভাবে লবণের মিল, ময়দার মিল, বাজারে মাছ বিক্রি করা, বিভিন্ন বণিকদের দোকানে শ্রমিকের কাজ কিভাবে করবে? জরুরী চিকৎসা সেবা তারা কোথা থেকে নেবে?  যদি আয় না করতে পারে তাহলে তাদের সংসার কিভাবে চলবে?  যদি ঝালকাঠি শহরে রিক্সা চলতে পারে তাহলে কেন খেয়া চলতে পারবে না? শহরের সাথে যোগাযোগ রক্ষাকারী কলেজ খেয়াঘাট, পৌরসভা খেয়াঘাট, ডাকঘাটা এলাকার কালামের খেয়াঘাট ও আবাসনের খেয়াঘাটে ফাকে ফাকে যাত্রী বহণ করা হলেও গুরুত্বপূর্ণ অতুল মাঝি খেয়া সম্পুর্ণরূপে বন্ধ রয়েছে। যদি এক সাথে একহাজার লোকের বাজার বসতে পারে তাহলে ৩ জন করে খেয়া কেন চলতে পারবে না? খেয়া বন্ধ করা হল কিন্তু মিল কারখানা, বাজার, চিকিৎসা সেবা তো বন্ধ হয় নাই। তাহলে এপারের মানুষ কি করবে?

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
Theme Customized By BreakingNews